ভিক্ষুক নেতা কাউন্সিলর প্রার্থী!

মোঃ শহর আলী 27.Jan.2021; 12:47:24

শেরপুরের নকলা পৌরসভা নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে দাঁড়িয়েছেন স্থানীয় ভিক্ষুক সমিতির সভাপতি আব্দুল হালিম। আগামী ৩০ জানুয়ারি নকলা পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এই পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন তিনি। বিডি প্রতিদিন

আলোচিত এই কাউন্সিলর প্রার্থী জানান, পরিবার-পরিজন নিয়ে নকলা শহরের উত্তর বাজারের জোড়া ব্রিজের নিচে বসবাস করেন। বহুদিন ধরে তার কাউন্সিলর হওয়ার ইচ্ছা থাকলেও টাকা পয়সা না থাকায় নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারছিলেন না। এলাকার মানুষে সহযোগিতায় এবার কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়ে তার মনের আশা পূরণ করতে চান তিনি।

আব্দুল হালিম বলেন, ‘৫ নম্বর ওয়ার্ড এলাকার মানুষ আমাকে নির্বাচনে দাঁড় করিয়েছে। এখন এলাকার যার যার সামর্থ্য অনুযায়ী ১০০, ২০০ ও ৫০০ টাকা দিয়ে সহযোগিতা করছেন। টাকা বেশি খরচ হবে এজন্য আমি নিজেই ইজিবাইকে করে আমার নির্বাচনী প্রচারণা করছি। আমার বউ এলাকায় চা বানিয়ে মানুষকে খাওয়াচ্ছেন এবং ভোট চাইছেন। চা বানাতে চা-পাতি, চিনি এলাকার মানুষরাই দিচ্ছেন।’

বেশ জোর দিয়েই চলছে আব্দুল হালিমের প্রচারণা। ‘মার্কা নিছি ব্রিজ, থাকিও ব্রিজের নিচেই, সবাই দয়া করে একটি করে ভোট দিবেন’-এভাবেই ইজিবাইকে করে মাইক নিয়ে নিজের নির্বাচনী প্রচারনা নিজেই চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি।’


আরও পড়ুন : সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় বিপদমুক্ত
আরও পড়ুন : রূপপুর পারমাণবিক কেন্দ্রের 30 শতাংশ কাজ শেষ

স্থানীয় বাসিন্দা হযরত আলী ও লাল মিয়া বলেন, ‘আব্দুল হালিম ভাইয়ের ইচ্ছা সে কাউন্সিলর হবে। এজন্য এলাকার মানুষ তাকে বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করছে। তার একটি টাকাও নেই, সব টাকা এলাকার মানুষ দিচ্ছে। আশা করছি আব্দুল হালিম ভাইয়ের ইচ্ছা পূরণ হবে। ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হওয়ার উজ্জ্বল সম্ভাবনা রয়েছে তার।’

স্থানীয় নূর হোসেন বলেন, ‘আব্দুল হালিম কাকা ৫ নম্বর ওয়ার্ডের ভিক্ষুক সমিতির সভাপতি। এজন্য তার কাছে অনেক গরিব মানুষ আসে। সে নিজেও ব্রিজের নিচেই থাকে পরিবার-পরিজন নিয়ে। এলাকাবাসী সহযোগিতা করছে তাকে কাউন্সিলর হতে। গত নির্বাচনেও আব্দুল হালিম ওই ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী হতে চেয়েছিলেন। কিন্তু ভুলের কারণে তার প্রার্থীতা বাতিল হয়ে যায়।’

 

সূত্র: আমাদের সময়

এ বিষয়ে আরো খবর